সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০১:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রযুক্তিতে গুরুম্ব দেওয়ার আহ্বান ড. বশিরের কালীগঞ্জে ৩০ বছর ধরে ঝুঁপড়িতে রাঁতকাটে গৌর দাসের! কালীগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন ১৫০ পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান কালীগঞ্জে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১৫০ পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর  হাতে টাকা ছিলনা,অভিযোগ করলেন আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের লালমনিরহাটে ঘন কুয়াশা,বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগ–নেই শীতবস্ত্র তিস্তায় এখন পানিও নেই মাছও নেই কষ্টে দিন কাটাচ্ছি তিস্তা পাড়ের জেলেরা  পাটগ্রামের ‘ইউএনও কে দ্রুত অপসারণ করা না হলে রাস্তাঘাট অচলের হুঁশিয়ারী ইউএনওর আশ্বাসে ঘুরেও জুটলোনা কিছুই লালমনিরহাট অনলাইন নিউজে সংবাদ প্রকাশের পর ফাতেমার ভাঙ্গা বাড়ীতে ডিসি,ঘর দেয়ার আশ্বাস
 রাজশাহীতে মরার আগে করোনা পজিটিভ, মরার পর নেগেটিভ

 রাজশাহীতে মরার আগে করোনা পজিটিভ, মরার পর নেগেটিভ

রংপুর মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে রংপুরের দুই জেলায় ১৭ জনের করোনা শনাক্ত
রংপুর মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে রংপুরের দুই জেলায় ১৭ জনের করোনা শনাক্ত

অনলাইন সংস্করণ,,,,,

গত ২৬ এপ্রিল রাজশাহীর বাঘা উপজেলার গাওপাড়া গ্রামের বৃদ্ধ আব্দুস সোবহান মারা যান। রাজশাহী সংক্রামক ব্যাধি (আইডি) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী তিনি করোনাক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। রাজশাহী বিভাগে সোবহানই করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তি বলে ঘোষণা করেন স্বাস্থ্য বিভাগ।

তবে শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, আব্দুস সোবহান করোনায় মারা যাননি। ফুসফুসে পানি জমে সংক্রমণের কারণে মারা গেছেন তিনি। অন্যদিকে পবা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এক নার্সের করোনায় আক্রান্ত নিয়েও সৃষ্টি হয়েছে একই ধরণের ঘটনা।

এখন প্রশ্ন উঠেছে আব্দুস সোবহানকে কেন রাজশাহীর প্রথম করোনায় মৃত বলে কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছিলেন। এই নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াশা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৯ এপ্রিল প্রস্রাবে সংক্রমণ ও জ্বর নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বাঘার ওই বৃদ্ধ। সন্দেহ হওয়ায় ২১ এপ্রিল বৃদ্ধের করোনা পরীক্ষা করা হয় রাজশাহী ল্যাবে। এতে তার পজিটিভ ফলাফল এলে তাকে আইডি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠিয়ে দেয়া হয়। সেখানেই ২৬ এপ্রিল তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর বৃদ্ধকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাজশাহী নগরীর একটি কবরস্থানে দাফন করা হয়। করোনায় মৃত্যু বলে তার লাশও গ্রামে নিতে দেয়া হয়নি।

তবে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. নওশাদ আলী জানান, মৃত বৃদ্ধের স্ত্রী, ছেলে যে ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন সেখানকার ৪২ চিকিৎসক নার্স স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্য রোগী যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের করোনায় আক্রান্তের আশঙ্কায় সবারই টেস্ট করা হয় পরের দুদিনে।

কিন্তু কারোরই পজিটিভ ফলাফল আসেনি। ফলে কর্তৃপক্ষ মৃত্যুর আগের দিন ২৫ এপ্রিল বৃদ্ধের পুনরায় করোনা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেন এবং নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় আইইডিসিআরে প্রেরণ করেন। তবে ফলাফল আসার আগেই ২৬ এপ্রিল বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। এদিকে বৃহস্পতিবার ২৬ এপ্রিল মারা যাওয়া বৃদ্ধের পরীক্ষার ফলাফল এসেছে নেগেটিভ। সেই হিসেবে বৃদ্ধ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায়নি-এখন সেটাই বলছেন কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহী ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় কেন এমন গড়মিল হচ্ছে জানতে চাইলে রামেক অধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী বলেন, কিছু সমস্যা তো কোথাও হচ্ছে। ফলে প্রকৃত ফলাফল পেতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে বলে মনে হচ্ছে। আমরা এই বিচ্যুতির জায়গাটা খতিয়ে দেখছি। রাজশাহীর বৃদ্ধ করোনায় মারা যায়নি এই রিপোর্ট আমরা বৃহস্পতিবার হাতে পেয়েছি।

এদিকে গত ২২ এপ্রিল পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একজন নার্সের করোনা পরীক্ষা করা হয় রাজশাহী ল্যাবে। সেখানে ফলাফল নেগেটিভ আসে। তবে সন্দেহমুক্ত না হওয়ায় তার নমুনা ঢাকায় আইইডিসিআরে প্রেরণ করা হয়। গত ২৭ এপ্রিল তার ফলাফল পজিটিভ এসেছে। সেই নার্সকে আইসোলেশনে রাখাসহ পবা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আবাসিক এলাকাটি লকডাউন করা হয়েছে।

এর আগেও নওগাঁর একজন সন্দেহভাজনের ফলাফল নিয়ে গড়মিল হয়েছে। এদিকে রাজশাহী ল্যাবের করোনার টেস্ট নিয়ে দুশ্চিন্তা বেড়েছে চিকিৎসক ও ভুক্তভোগী সংশ্লিষ্ট মহলের।

শেয়ার করুন:

সংবাদ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভাষা পরিবর্তন করুন




© All rights reserved © 2018 লালমনিরহাট অনলাইন নিউজ
Design BY PopularHostBD