শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কালীগঞ্জে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ১ হজার বৃক্ষ রোপন কালীগঞ্জে জাতীয় ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইন বিষয়ে অবহিত করণ সভা হাতীবান্ধায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে বটি দিয়ে কোপানোর চেষ্টা, মেয়েকে ধর্ষনের হুমকি কালীগঞ্জে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কালীগঞ্জে বাল্যবিয়ের দায়ে কাজীর ৬ মাসের জেল,৫ হাজার টাকা জরিমানা করোনা কালীন শিক্ষা যোদ্ধা সহঃশিক্ষক  রুবেল    কালীগঞ্জে তেলের ঘানি টানা ছয়ফুল পেলেন প্রধানমন্ত্রী উপহার এছাড়াও পুলিশ ও  বসুন্ধরার বাল্য বিবাহ দেয়ার পরিনাম হচ্ছে একটি মেয়ে শিশুকে হত্যা করা- জেলা প্রশাসক কালীগঞ্জে অসহায় পরিবারকে চিকিৎসার জন্য সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর পক্ষে আর্থিক সহায়তার চেক প্রদান নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্প শেষ করতে হবে : জনগণের বাস্তবিক চাহিদার কথা মাথায় রেখে
উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়কসহ ৪ জেএমবি সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব

উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়কসহ ৪ জেএমবি সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব

নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির উত্তরবঙ্গের প্রধান সমন্বয়কসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৩। র‌্যাব-১৩ জানায়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার দিবাগত রাতে রংপুরের তারাগঞ্জে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এসময় তাদের কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, রিভলবার, দুটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড তাজা গুলি এবং বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তার প্রধান সমন্বয়ক মো. আবদুর রহমান বিশ্বাস ওরফে ফুয়াদ ওরফে নিয়াজ (২২) জেএমবির আধ্যাত্মিক নেতা মাওলানা মো. আবুল কাশেমের ছেলে। গ্রেপ্তার অন্য জঙ্গিরা হলেন, মো. আখিনুর ইসলাম (২৩), মো. লোকমান আলী ওরফে কোরবান (৫৫) এবং মো. মিজানুর রহমান (৩৮)।

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক বিপিএম, পিপিএম র‌্যাব কার্যালয়ে প্রেস বিফ্রিংয়ে এ তথ্য জানান।
তিনি জানান, জেএমবির আধ্যাত্মিক নেতা মাওলানা মো. আবুল কাশেম কাউন্টার টেররিজম ইউনিট কর্তৃক ২০১৭ সালের মার্চে ঢাকায় গ্রেপ্তার হন। এরপর থেকে আবদুর রহমান বেশি সক্রিয় হন। এবং তখন থেকেই উত্তরবঙ্গের জেএমবির প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানিয়েছেন, সংগঠন চাঙ্গা রাখতে লোকজনকে ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে অর্থ নিতেন। সংগৃহীত অর্থ দিয়ে তারা অস্ত্রশস্ত্রও কিনে থাকে। র‌্যাব অধিনায়ক আরও জানান, এলাকাভিত্তিক তারা নতুন সদস্য সংগ্রহ, সদস্যদের ডাটাবেজ সংরক্ষণ, প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য পরিকল্পনা করে থাকে। তারা শুধু উত্তরবঙ্গেই নয়, সমগ্র দেশেই তাদের নানা ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা রয়েছে। বিশেষ করে বিভিন্ন এনজিও থেকে অর্থ ছিনতাই, ইসলামবিরোধী প্রচার করে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের হত্যা করা ইত্যাদি।

যাতায়াতের জন্য তারা বিভিন্ন এলাকা হতে ছিনতাই করে মোটরসাইকেল সংগ্রহ করে এবং সেগুলো ব্যবহার করে থাকে। জেএমবির সাংগঠনিক গোপন বৈঠকে তারা নিয়মিত অংশ নিত।

শেয়ার করুন:

সংবাদ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভাষা পরিবর্তন করুন




© All rights reserved © 2018 লালমনিরহাট অনলাইন নিউজ
Design BY PopularHostBD