বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বিদ্যুৎতের কাজ করতে গিয়ে হাত হারালাম তবুও চাকুরী স্থায়ীকরণ হলো না পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রযুক্তিতে গুরুম্ব দেওয়ার আহ্বান ড. বশিরের কালীগঞ্জে ৩০ বছর ধরে ঝুঁপড়িতে রাঁতকাটে গৌর দাসের! কালীগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন ১৫০ পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান কালীগঞ্জে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১৫০ পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর  হাতে টাকা ছিলনা,অভিযোগ করলেন আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের লালমনিরহাটে ঘন কুয়াশা,বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগ–নেই শীতবস্ত্র তিস্তায় এখন পানিও নেই মাছও নেই কষ্টে দিন কাটাচ্ছি তিস্তা পাড়ের জেলেরা  পাটগ্রামের ‘ইউএনও কে দ্রুত অপসারণ করা না হলে রাস্তাঘাট অচলের হুঁশিয়ারী ইউএনওর আশ্বাসে ঘুরেও জুটলোনা কিছুই
ইউএনওর আশ্বাসে ঘুরেও জুটলোনা কিছুই

ইউএনওর আশ্বাসে ঘুরেও জুটলোনা কিছুই

আদিতমারী লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহটের আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মৃত ফছির উদ্দিনের ছেলে একরামুলের সম্বল ছিল পৈত্রিক ৮ শতাংশ জমি।সেই ৮ শতাংশ ভিটের ৫ শতাংশ জমি সরকারের কাছে লিখে দেন কমিউনিটি ক্লিনিক করার জন্য।তার বাস্তভিটা এখন তিন শতাংশে।এসএসসি পাশ একরামুল কাজ করেন অন্যের দোকানে।কখনোবা রিক্সা ভ্যান চালান।সেখানে এখন ফকিরটারি কমিউনিটি ক্লিনিক।

একরামুলের জীবন নিয়ে রাইজিংবিডিতে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।তারপর অন্য অনেক মাধ্যমেই তাকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ পায়।

এরপর আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মনসুর উদ্দিন একরামুলকে নিজ অফিসে ডেকে তার ভোটার আইডিকার্ড,মোবাইল নম্বর নিয়ে একটি ঘর বরাদ্দের দেয়ার কথা জানান।

এরপরই একরামুলকে ঘুরতে হয় অফিসে অফিসে,দোড়ে দোড়ে।

একরামুল জানায়-
তাকে বিভিন্ন সময় ডেকে নেন আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তৌফিক আহমেদ।তিনি একরামুলকে বিভিন্ন মানুষের সাথে দেখা করতে বলেন।সব শেষ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব দেয়ার আশ্বাস দিয়ে প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তার কাছে পাঠান।উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা তাকে কোনো সুযোগ নেই বলে জানান।

তৌফিক এলাহির সাথে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যার্থ হতে হয় প্রতিবেদককে।

একরামুল আবেগআপ্লুত হয়ে বলেন,বাপদাদার সম্পদত্তি সরকারের নামে লিখে দিয়েছি।কমিউনিটি ক্লিনিক করার জন্য।সেখানে অনেক মানুষ সেবা পায়।আমার বাস্তভিটা ৩ শতাংশের ওপর।আমি সরকারকে জমি লিখে দিয়েছি জনসেবার জন্য,প্রতিদানের জন্য নয়।তবুও কেন এতবার এতগুলো অফিসে ঘুরালো!অযথা ঘোরাঘুরি করালো।কথা গুলো বলতে বলতে একরামুলের কণ্ঠ জড়িয়ে আসে।কথা আর বেরোয় না।

এত কিছুর পরও ৪ সন্তান সহ ৬ সদস্যের পরিবার নিয়ে সুখেই আছে এনামুল।

শেয়ার করুন:

সংবাদ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভাষা পরিবর্তন করুন




© All rights reserved © 2018 লালমনিরহাট অনলাইন নিউজ
Design BY PopularHostBD