বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বিদ্যুৎতের কাজ করতে গিয়ে হাত হারালাম তবুও চাকুরী স্থায়ীকরণ হলো না পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রযুক্তিতে গুরুম্ব দেওয়ার আহ্বান ড. বশিরের কালীগঞ্জে ৩০ বছর ধরে ঝুঁপড়িতে রাঁতকাটে গৌর দাসের! কালীগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীন ১৫০ পরিবারের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান কালীগঞ্জে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ১৫০ পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর  হাতে টাকা ছিলনা,অভিযোগ করলেন আড়াই লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের লালমনিরহাটে ঘন কুয়াশা,বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগ–নেই শীতবস্ত্র তিস্তায় এখন পানিও নেই মাছও নেই কষ্টে দিন কাটাচ্ছি তিস্তা পাড়ের জেলেরা  পাটগ্রামের ‘ইউএনও কে দ্রুত অপসারণ করা না হলে রাস্তাঘাট অচলের হুঁশিয়ারী ইউএনওর আশ্বাসে ঘুরেও জুটলোনা কিছুই
হাতীবান্ধায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে বটি দিয়ে কোপানোর চেষ্টা, মেয়েকে ধর্ষনের হুমকি

হাতীবান্ধায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে বটি দিয়ে কোপানোর চেষ্টা, মেয়েকে ধর্ষনের হুমকি

হাতীবান্ধা (লালমনিরহা) প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জেড় ধরে  মজিবুর রহমান (৬৫) নামে এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে বটি দিয়ে কোপানোর চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে তারই ভাতিজা উৎসবের (২০) বিরুদ্ধে। এমনকি এ সময় ওই বখাটে উৎসব মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর চুলের মুটি ধরে টানা হেচড়া করে এবং তার মেয়েকে ধর্ষনেরও হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় গত রোববার (১৩ সেপ্টম্বর) ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে উৎসবকে প্রধান আসামী করে আরও তিনজনের নামে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর আগে গত ১১ সেপ্টম্বর দুপুরে উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের ১ নং ওযার্ডে এ ঘটনাটি ঘটে৷

অভিযুক্ত বখাটে উৎসব উপজেলার ওই এলাকার নুর ইসলামের ছেলে। অন্য অভিযুক্তরা হলেন, উৎসবের মা ও দুই বড় বোন।

ভুক্তভোগী বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমান উপজেলার ওই এলাকার মৃত মশিউর রহমানের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমানের বাড়ি লাগোয়া উৎসবের বাড়ি। তারা সম্পর্কে চাচা ভাতিজা। উৎসবদের সাথে মজিবুর রহমানের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। এরই ধারবাহিকতায় গত ১১ সেপ্টম্বর অভিযুক্ত উৎসবের মা ও বোনরা মুক্তিযোদ্ধার বাড়ির সামনে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তার মেয়ে এবং স্ত্রী বাধা দেয়। এতে উৎসবের মা-বোনরা মুক্তিযোদ্ধার মেয়ে ও স্ত্রীর উপর হামলা চালায় এবং তাদের চুলির মুঠি ধরে টানা হেচড়া করে। সেখানে বাধা দিতে গেলে উৎসব ধারালো বটি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমানকে কোপাতে যায়। এ সময় তাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসেন এবং মুক্তিযোদ্ধা মুজিবরকে রক্ষা করেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত উৎসবের কাছে জানতে চাইলে সে জানায়, ওই মুক্তিযোদ্ধা আমার মাকে নিয়ে বাঝে কথা বলে। মাকে নিয়ে খারাপ কথা বলায় আমি রাগ্নিত হয়ে বটি নিয়ে মারতে যাই। কিন্তু তাকে মারিনি।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধা মজিবুর রহমান বলেন, নিজের জীবন বাজি রেখে নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ করে দেশকে হানাদার মুক্ত করেছি। আর আজ সেই দেশের মাটিতে আমি ও আমার পরিবার নিরাপদ নই। আমাকে বটি দিয়ে কোপাতে আসে। আমার স্ত্রীর চুলের মুঠি ধরে টানা হেচড়া করে। এছাড়া আমার মেয়েকে ধর্ষন করবে বলে হুমকি দেয় বখাটে উৎসব। আমি তাদের উপযুক্ত শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম জানান, আমি ছুটিতে ছিলাম। বিষয়টি জানা নেই।

শেয়ার করুন:

সংবাদ টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভাষা পরিবর্তন করুন




© All rights reserved © 2018 লালমনিরহাট অনলাইন নিউজ
Design BY PopularHostBD